মেনু নির্বাচন করুন

ইউনিয়ন পরিষদ

সরিষাবাড়ী উপজেলার ২নং পোগলাদিঘা ইউনিয়ন ১৯৫৬ সালে তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের সময় কয়েকটি গ্রাম নিয়ে গঠিত হয় এ ইউনিয়ন। পোগলদিঘা গ্রামের নামে এ ইউনিয়নের নামকরন করা হলেও পোগলদিঘা নামের সঠিক ইতিহাস জানা যায়নি। ৯.৮৮৩ বর্গ মিটার আয়তনের এ ইউনিয়নে বর্তমানে গ্রাম রয়েছে ৩০ টি।                জনসংখ্যাঃ-২০০১- এর আদম শুমারী অনুযায়ী পোগলদিঘা ইউনিয়নের মোট জন সংখ্যা ৫৪ হাজার ৪৭১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২৮ হাজার ও নারী রয়েছে ২৬ হাজার ৪৭১ জন। আর সর্ব শেষ ভোটার তালিকা অনুযায়ী এ ইউনিয়নে মোট ভোটার রয়েছে ৩২ হাজার ৯০৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৬ হাজার ১৮৫ জন ও নারী ভোটার রয়েছে ১৬ হাজার ৭১৮ জন। এ ইউনিয়নে মোট পরিবার রয়েছে ৯ হাজার ৮২৫ টি। অবকাঠামোঃ-২নং পোগলদিঘা ইউনিয়নটি একতলা বিশিষ্ট

পরিষদ ভবনটি বয়ড়া বাজারে অবস্থিত। পরিষদ ভবনটির উত্তরে ১নং সাতপোয়া ইউনিয়ন, দক্ষিণে  ৪নং আওনা ইউনিয়ন, পূর্বে ৩নং ডোয়াইল ইউনিয়ন, পশ্চিমে সিরাজগঞ্জ জেলার কাজীপুর থানার চরগিরিশ ও মুনসুরনগর ইউনিয়ন অবস্থিত। পরিষদ ভবনটিতে রয়েছে ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র, ভূমি অফিস, ও পাঠাগার। এছাড়া পরিষদ ভবনের দেয়াল ঘেষেই রয়েছে একটি আধুনিক মানের ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ  কেন্দ্র। এ ইউনিয়নে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোর মধ্যে কলেজ- ১ টি, উচ্চ বিদ্যালয়- ৮ টি, মাদ্রাসা- ৩ টি, প্রাথমিক বিদ্যালয়- ১৩ টি, প্রাক- প্রাথমিক বিদ্যালয়- ৫ টি।  স্বাস্থ্য ও সেবার জন্য ৮ টি কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে। অর্থনীতিঃ- এ ইউনিয়নের ৮০ ভাগ জনসাধারন কৃষি নির্ভর । এ ছাড়া শিক্ষিত জনসাধারন বিভিন্ন চাকুরী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের  সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে।  শিল্প প্রতিষ্ঠানঃ- ১৯৯১ সালে ২নং পোগলদিঘা ইউনিয়নের তারাকান্দি এলাকায় দেশের বৃহৎ ইউরিয়া সার উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান যমুনা সারকারখানা পতিষ্ঠার পর থেকে পাল্টে যায় এ ইউনিয়নের অর্থনৈতিক চিত্র। এ সার কারখানায় এলাকার জনসাধারন চাকুরী, শ্রম, ডিলার,পরিবহন যোগ্যতার ভিত্তিতে বিভিন্ন কাজে জড়িত হয়ে পড়ে। সার কারখানাকে ঘিরে এ ইউনিয়নের স্থাপিত হয় বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ব ও বাণিজ্যিক ব্যাংকের ৬টি শাখা ও অসংখ্য বেসরকারী - এনজিও সংস্থা।                              রাজনীতি ও সংস্কৃতিঃ- এ ইউনিয়নের রাজনৈতিক অবস্থান স্থিতিশীল রয়েছে। তারাকান্দি যমুনা সার কারখানাকে ঘিরে মাঝে মধ্যে দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা থাকলেও সারা ইউনিয়নের অবস্থা স্বাভাবিক। অপর দিকে এ ইউনিয়নের অধিকাংশ মানুষই সংস্কৃতি প্রিয়। বিভিন্ন সময় নৌকা বাইচ, বাউল ও জারি গানের আসর, ঘোড়া দৌড়, লাঠি খেলা ও বৈশাখী মেলার আয়োজন হয়। সম্প্রতি রুদ্র বয়ড়া উচ্চ বিদ্যালয় বির্তক প্রতিযোগীতায় বিবাগীয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হয়ে এ ২নং পোগলদিঘা ইউনিয়নের সুনাম কে আরো বাড়িয়েছে।   বিশেষ ব্যক্তিত্বঃ- ২নং পোগলদিঘা ইউনিয়নে অনেক নামিদামী ও বিখ্যাত ব্যক্তিগণ জন্মগ্রহন করেছেন। সাবেক সফল ধর্মপ্রতিমন্ত্রী মাওলানা নূরুল ইসলাম এ ইউনিয়নের পাখিমারা গ্রামের কৃতি সন্তান। এ ছাড়াও জাতীয় তেল, গ্যাস,বন্দর, বিদ্যুৎ রক্ষার জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মোহাম্মদের বাড়ি এ ইউনিয়নের তারাকান্দি গ্রামে।                                     


Share with :

Facebook Twitter